ড্যামেজ কন্ট্রোল অধরা, ইডির ঘাড়ে দোষ চাপালেন মন্ত্রী - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


ড্যামেজ কন্ট্রোল অধরা, ইডির ঘাড়ে দোষ চাপালেন মন্ত্রী

Share This
ড্যামেজ কন্ট্রোল অধরা, ইডির ঘাড়ে  দোষ  চাপালেন মন্ত্রী
সন্দেশখালিতে মীনাক্ষী মুখার্জি 

আজ খবর (বাংলা), সন্দেশখালি, উত্তর ২৪ পরগণা, ২৪/০২/২০২৪ : শনিবার ড্যামেজ কন্ট্রোলের উদ্দেশ্যে ফের একবার সন্দেশখালিতে গিয়েও  কোন লাভ হল না, শেষমেশ ইডির ঘাড়ে দোষ চাপিয়ে এবং শেখ শাহজাহানের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির যে অভিযোগ আনা হয়েছে তা 'ভুয়ো' , এই বক্তব্য তুলে ধরে  দ্বীপ ত্যাগ করলেন তৃণমূল কংগ্রেসের দুই মন্ত্রী সুজিত বসু এবং পার্থ ভৌমিক। 

আজ ড্যামেজ কন্ট্রোলের উদ্দেশ্যে ফের একবার সন্দেশখালিতে হাজির হয়েছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের দুই নেতা তথা রাজ্য সরকারের দুই মন্ত্রী সুজিত বসু এবং পার্থ ভৌমিক। তাঁরা আজ ফের একবার গ্রামের মহিলাদের সাথে সাক্ষাৎ করেন, তাঁদের সাথে কথা বলে পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করেন। কিন্তু সন্দেশখালি যেন উত্তপ্ত হয়েই রয়েছে। দুই মন্ত্রী নানারকমভাবে বোঝানোর চেষ্টা করেন।  এমনকি পার্থ ভৌমিককে এও বলতে শোনা যায়, পার্থ চ্যাটার্জির মত মন্ত্রীকে দল থেকে তাড়াতে  যদি একটুও সময় না লাগে, তাহলে ছোটখাটো নেতা বা গুন্ডাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতেও দলের বেশি সময় লাগবে না। পার্থ ভৌমিকের এই কথায় অবশ্য চিড়ে  ভেজে নি এতটুকুও। 

এদিন পার্থ ভৌমিক দাবী করেন, "তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার  কোনো অভিযোগ নেই। এই রিপোর্টটি আসলে একটি ভুয়ো রিপোর্ট। তবে এটা ঠিক যে কিছু জমি সংক্রান্ত অভিযোগ  উঠেছে যেগুলি জোর করে নিয়ে নেওয়া হয়েছিল, সেইসব জমি ফিরিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।" যদিও সন্দেশখালিতে প্রতিবাদী মহিলারা একযোগে নিজেদের যৌন হেনস্থার অভিযোগ তুলেছে শেখ শাজাহান, তার ভাই সিরাজ, বা অন্যান্যদের বিরুদ্ধে। তাঁরা জোর করে জমি কেড়ে নেওয়ার অভিযোগও তুলেছেন। তাঁরা এও বলেছেন পুলিশ সবসময় নিষ্ক্রিয় থেকেছে। পুলিশের কাছে গেলে তারা মীমাংসার জন্যে শেখ শাজাহানের কাছেই যাওয়ার নিদান দিতেন।

আজ সকালে ডিওয়াইএফআই এর রাজ্য  সম্পাদক মীনাক্ষী মুখার্জি  ঘুরপথে সন্দেশখালিতে গিয়ে আক্রান্ত মহিলাদের সাথে সাক্ষাৎ করেন ও কথা বলেন। পুলিশ প্রথমে কিছু বুঝতে না পারলেও পরে তাঁর পথ  আটক করে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করার জন্যে। এই সময় সন্দেশখালিতে প্রবেশ করতে চলেছেন তৃণমূল কংগ্রেসের দুই মন্ত্র্রী সুজিত বসু ও পার্থ  ভৌমিক। তাঁকে ১৪৪ ধারায় আটকে দেওয়া হল অথচ মন্ত্রীদের আটকানো হল না কেন ? এই প্রশ্ন তুলেছিলেন মীনাক্ষী মুখার্জি। কিন্তু তাঁর এই প্রশ্নের কোনো সদুত্তর দিতে পারে নি পুলিশ। 

ড্যামেজ কন্ট্রোলের উদ্দেশ্যে আজ দ্বীপভূমি সন্দেশখালিতে এসেও কোনো ফায়দা তুলতে পারলেন না দুই মন্ত্রী সুজিত বসু ও পার্থ ভৌমিক। শেষ পর্যন্ত একরকম শূন্য হাতেই তাঁদের দ্বীপ ছাড়তে হল।  পার্থ ভৌমিক বললেন, "একেবারে শুরুতেই ইডির উচিত ছিল  শেখ শাহ্জাহানদের গ্রেপ্তার করে ফেলা।" কিন্তু যত  যাই হোক ঘটনার পর ৫০ দিন কেটে গেলেও দিনের শেষে অধরাই থেকে গেলেন সন্দেশখালির মোস্ট ওয়ান্টেড শেখ শাহজাহান।

Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages