দেশে 7টি মেগা টেক্সটাইল পার্ক গড়ে তুলতে কেন্দ্র খরচ করবে 4445 কোটি টাকা - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


দেশে 7টি মেগা টেক্সটাইল পার্ক গড়ে তুলতে কেন্দ্র খরচ করবে 4445 কোটি টাকা

Share This

দেশে 7টি মেগা টেক্সটাইল পার্ক গড়ে তুলতে কেন্দ্র খরচ করবে 4445 কোটি টাকা


আজ খবর (বাংলা), নতুন দিল্লী, ভারত, 23/10/2021 : কেন্দ্রীয় বস্ত্র মন্ত্রক বৃহস্পতিবার ৭টি পিএম মিত্র পার্ক স্থাপনের জন্য বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে। ২০২১-২২ কেন্দ্রীয় বাজেটে এধরণের পার্ক গঠনের কথা ঘোষণা করা হয়েছিল। কেন্দ্রীয় সরকার পিএম মিত্র পার্ক স্থাপনের প্রস্তাব ইতিমধ্যেই অনুমোদন করেছে। মন্ত্রকের ওয়েবসাইটে (http://texmin.nic.in) এই সম্পর্কিত বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে।

 
পিএম মিত্র পার্ক কর্মসূচি রূপায়ণের উদ্দেশ্য হল, প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর আত্মনির্ভর ভারত গড়ে তোলার স্বপ্ন বাস্তবায়ন এবং বিশ্ব বস্ত্র মানচিত্রে ভারতকে উপযুক্তি জায়গা করে দেওয়া। 
 
পিএম মিত্র কর্মসূচি এমন ভাবে পরিকল্পনা করা হয়েছে, যা ভারতকে রাষ্ট্রসংঘের দীর্ঘস্থায়ী উন্নয়নের উদ্দেশ্য পূরণে সাহায্য করবে। এগুলির মধ্যে রয়েছে এক নমনীয় পরিকাঠামো গড়ে তোলা, দীর্ঘ মেয়াদী ভিত্তিতে শিল্পায়ণ এবং উদ্ভাবনের প্রসার। 
 
পিএম মিত্র কর্মসূচি প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর ৫টি 'এফ' দূরদৃষ্টিতে অনুপ্রাণিত। এই পাঁচটি 'এফ'-এর গঠনগত বৈশিষ্ট্য হল ফার্ম টু ফাইবার; ফাইবার টু ফ্যাক্টরি; ফ্যাক্টরি টু ফ্যাশন; ফ্যাশন টু ফরেন। প্রধানমন্ত্রীর পাঁচটি 'এফ' সম্পর্কিত এই পরিকল্পনা অর্থ ব্যবস্থায় বস্ত্র ক্ষেত্রের বিকাশে সহায়ক হবে। ভারতের মত আর অন্য কোন দেশের বস্ত্র ক্ষেত্রে এরকম সুসংবদ্ধ ব্যবস্থা নেই। 
 
এই কর্মসূচি বস্ত্র শিল্পের সমগ্র মূল্য-শৃঙ্খল ব্যবস্থায় সুসংবদ্ধ ও আধুনিক শিল্প পরিকাঠামোগত সুযোগ-সুবিধা গড়ে তুলতে সাহায্য করবে। এমনকি, পরিবহণ খাতে খরচ কমিয়ে ভারতীয় বস্ত্র শিল্পে প্রতিযোগিতা বাড়াবে। একই ভাবে, এই কর্মসূচি ভারতে বস্ত্র ক্ষেত্রে বিনিয়োগ আকৃষ্ট করবে, কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করবে এবং সর্বোপরি বিশ্ব বস্ত্র বাজারে ভারতের অবস্থান আরও শক্তিশালী করবে। পিএম মিত্র পার্কগুলি সেই সব জয়গায় গড়ে তোলা হবে যেখানে বস্ত্র শিল্পের প্রাধান্য এবং প্রয়োজনীয় যোগাযোগ ব্যবস্থার সুবিধা রয়েছে। 
 
আগ্রহী রাজ্যগুলিতে গ্রীণ ফিল্ড / ব্রাউন ফিল্ড এলাকায় এই ৭টি পিএম মিত্র পার্ক গড়ে তোলা হবে। যে সমস্ত রাজ্য থেকে প্রস্তাব আসবে এবং যেখানে বস্ত্র শিল্পের অনুকূল বাতাবরণ রয়েছে সেখানে এই পার্কগুলি গড়ে তোলা হবে। 
 
গ্রীণ ফিল্ড এলাকায় পিএম মিত্র পার্ক গড়ে তোলার ক্ষেত্রে ভারত সরকার মোট প্রকল্প খাতে খরচের ৩০ শতাংশ পর্যন্ত মূলধন সহায়তা দেবে। অবশ্য এই সহায়তার ঊর্ধ্বসীমা ৫০০ কোটি টাকা স্থির হয়েছে। অন্যদিকে, ব্রাউন ফিল্ড এলাকায় গড়ে তোলা পিএম মিত্র পার্কের জন্য প্রকল্প খাতে মোট খরচের ৩০ শতাংশ পর্যন্ত সহায়তার পাশাপাশি অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হবে। অবশ্য, প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা গড়ে তুলতে সর্বোচ্চ ২০০ কোটি টাকা সহায়তা দেওয়া হবে। আগ্রহী রাজ্য সরকারগুলি বিশ্বমানের শিল্পাঞ্চল গড়ে তুলতে এক হাজার একর জমির সংস্থান করবে। 
 
পিএম মিত্র পার্কগুলি স্পেশাল পার্পাস ভেইক্যাল (এসপিভি) হিসেবে গড়ে তোলা হবে। এধরণের পার্কে সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে রাজ্য সরকার ও কেন্দ্রীয় সরকারের মালিকানা থাকবে। যে সংস্থা এধরণের পার্ক গড়ে তুলবে তারা কেবল রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বেই থাকবে না, সেই সঙ্গে এগুলির তত্ত্বাবধান করবে। রাজ্য ও কেন্দ্র সরকারের পক্ষ থেকে যৌথ ভাবে যে সমস্ত শর্তাবলী চূড়ান্ত হবে তার ভিত্তিতে পার্ক গড়ে তোলার জন্য সংস্থাগুলিকে চিহ্নিত করা হবে। 
 
প্রকৃত পক্ষে এই কর্মসূচি ব্যাপক কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির পাশাপাশি ভারতীয় বস্ত্র শিল্প সংস্থাগুলিকে বিশ্বের অগ্রণী সংস্থায় পরিণত হতে সাহায্য করবে। বর্তমানে পিএম মিত্র পার্ক কর্মসূচির নীতি-নির্দেশিকা প্রস্তুত করা হচ্ছে। এই নীতি নির্দেশিকা চূড়ান্ত হওয়ার পর আগ্রহী রাজ্য সরকারগুলির কাছ থেকে পার্ক স্থাপনের প্রস্তাব চাওয়া হবে। 
Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages