সাংবাদিক বৈঠকে তৃণমূলের বিরুদ্ধে সুর চড়ালেন বিজেপি মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


সাংবাদিক বৈঠকে তৃণমূলের বিরুদ্ধে সুর চড়ালেন বিজেপি মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য

Share This

সাংবাদিক বৈঠকে তৃণমূলের বিরুদ্ধে সুর চড়ালেন বিজেপি মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য


আজ খবর (বাংলা), কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ, 12/09/2021 : আজ কলকাতার মুরলীধর সেন লেনের সদর দপ্তরে বসে বিজেপি মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য বেশ কয়েকটিতে বিষয় তুলে ধরেছেন।

সংবাদ পত্রে প্রকাশিত একটি বিতর্কিত বিজ্ঞাপন নিয়ে শমীক ভট্টাচার্য বলেন, "সংবাদ পত্রের এক বিজ্ঞাপন নিয়ে তৃণমূল তোলপাড় করছে। কদর্য ভাষায় আক্রমণ করছে। ভুল আর চুরি, নকল এক শব্দ নয়। যে পত্রিকায় এই বিজ্ঞাপন হয়েছে, সেখানে কোনও এজেন্সি দায়ী। এরপর কোনও সরকারি আধিকারিক দায়ি হলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। দল এতে জড়িত নয়।"

কলকাতার মা ফ্লাই ওভার নিয়ে একটি প্রশ্নের উত্তরে শমীকবাবু বলেন, "মা ফ্লাইওভার বাম আমলে ভিত্তিপ্রস্তর তৈরি হয়েছিল। এই সরকার শুধু নাম বদল আর উদ্বোধন করেছে। এরকম অনেক কিছু বাম আমলে ঘোষণা করা,এই সরকার শুধু উদ্বোধন করেছে। এই সরকারের সব সিদ্ধান্ত আদালতে যায়, আদালতে আটকে যায়, তারা ভুলের হিসাব নিতে এসছেন।"

ভবানীপুরের আসন্ন উপনির্বাচন নিয়ে শমীক ভট্টাচার্য বলেন, "ভবানীপুর পরপর দুবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নির্বাচিত করেছিল, সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রকে প্রত্যাখ্যান করে অবিশ্বাস করে ভবানীপুর ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন। সেই ভবানীপুরে রাজ্যের মন্ত্রী বিজেপি নেতাদের যে ভাষায় আক্রমণ করছেন তা দুর্ভাগ্যজনক।  বলা হচ্ছে, মানুষ বুঝে নেবে। বিজেপির দুই নেতাকে আক্রমণ করলেন।"

বিজেপির মুখপাত্র আজ অভিযোগের সুরে বলেন, "চিফ মিউনিসিপ্যাল হেলথ অফিসার চিঠি দিয়ে বলছেন, কলকাতায় সেফ হোম খোলার প্রয়োজন পড়লে তা খোলা হবে ৩০ সেপ্টেম্বর,  ভবানীপুর উপনির্বাচনের পরেই। এ কী প্রকাশ করছে এই সরকার।" 

শমীকবাবু বলেন, "পুরো নির্বাচন দাঁড়িয়ে ভবানীপুর ঘিরে।  রাজ্যের মুখ্যসচিব চিঠি লিখলেন কমিশনে। তৃণমূল চিঠি লিখলে অন্যায় ছিল না। মুখ্যসচিবের চিঠি প্রমাণ দিচ্ছে, সাংবিধানিক সংকট এরাজ্যে বহাল।" তিনি আরও বলেন, "আট দফায় নির্বাচন এরাজ্যের লজ্জা। রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা সেই জায়গায় গেছে। আজ উপনির্বাচনে ভবানীপুরেও ভাষা সন্ত্রাস চালু হয়ে গেছে৷" 

শমীক ভট্টাচার্যের দাবী "ভবানীপুরে যারা দায়িত্বে, কেউ তো  ভবানীপুরের নয়। আমাদের দলে বাঙালি-অবাঙালি তত্ত্ব নেই। আমরা বহিরাগত ভাবি না কাউকে। নির্বাচন শুরু হলেই,,ভবানীপুরের লোক দেখতে পাবেন। আমরা প্রথমে ভারতীয় পরে বাঙালি।"  

'কোচবিহারে তৃণমূল কর্মী খুনের ঘটনায় সিবিআই ৪ বিজেপি কর্মীকে গ্রেফতার করেছে' এই প্রসঙ্গে বিজেপি মুখপাত্র বলেন, "সিবিআই তার নিজস্ব কাজ করছে। খাঁচা থেকে বেরিয়েছে তোতা। দল মত না দেখেই তারা কাজ করেন৷ বিশ্বাস আছে। তৃণমূলের আস্থা রাখেনি। ওরা দেখুক।" তিনি বলেন, "পরিষদীয় মন্ত্রী এখন ছেলেধরা।অন্য দলের বিধায়কদের ছেলে ধরার মতো পতাকা ধরাচ্ছেন। উনি নিজের ওজন কমাবেন ও শিল্পের ওজন বাড়াবেন এটাই কাম্য। বিজিবিএসে অংশ নেওয়া শিল্পপতিরা বাইরের রাজ্যে বিনিয়োগ করছেন। উত্তরপ্রদেশে বিনিয়োগ হচ্ছে৷" 

সাংবাদিকরা বলেন, 'এবার ত্রিপুরায় খেলতে যাবেন  অনুব্রত'। জবাবে শমীক ভট্টাচার্য বলেন, "ভালো তো ফুটবল টিম তো যায় ! খেলা ভাল। মনোরঞ্জন হবে। খেলুক।"

রিপোর্ট : জয় গুহ

Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages