৩ লক্ষ ট্র্যাক্টরে করে এসে খোলা তরোয়াল নিয়ে দিল্লীর রাজপথে আন্দোলনকারী কৃষকরা - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


৩ লক্ষ ট্র্যাক্টরে করে এসে খোলা তরোয়াল নিয়ে দিল্লীর রাজপথে আন্দোলনকারী কৃষকরা

Share This

৩ লক্ষ ট্র্যাক্টরে করে এসে খোলা তরোয়াল নিয়ে দিল্লীর রাজপথে আন্দোলনকারী কৃষকরা


আজ খবর (বাংলা), নতুন দিল্লী, ভারত, ২৬/০১/২০২১ : প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন রাজধানী দিল্লীতে পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙ্গে  ট্র্যাক্টর মিছিল এগিয়ে নিয়ে গেলেন পাঞ্জাব ও হরিয়ানার কৃষকরা।

দিল্লীতে প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন কৃষকরা কেন্দ্রের নতুন তিনটি আইনের বিরোধিতা করে  দিল্লীর রাজপথে ট্র্যাক্টর মিছিল করবেন কিনা আদালত সেই সিদ্ধান্ত দিল্লী পুলিশকে নিতে বলেছিল। দিল্লী পুলিশ সেইমত আজ কৃষকদের ট্র্যাক্টর মিছিলের অনুমতি দিয়েছিল শর্তসাপেক্ষে। ঠিক হয়েছিল দিল্লীর সীমান্তে আটকে দেওয়া পাঞ্জাব ও হরিয়ানার কৃষকদের দিল্লীতে ট্যাক্টর মিছিল করতে দেওয়া হবে, তবে সেই মিছিল করতে হবে শান্তিপূর্ণভাবে। মোট ৫০০০ ট্র্যাক্টরের অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। বেশ কিছু রুট তৈরি করে দেওয়া হয়েছিল, যে রুট ধরে কৃষকদের ট্র্যাক্টর মিছিল এগিয়ে যাবে।

দিল্লী পুলিশের অনুমতি পেয়েই আজ সকালে দিল্লীর সিংঘু ওটিকরি বর্ডারে পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙ্গে কৃষকদের ট্র্যাক্টর মিছিল এগোতে শুরু করে।. রাস্তায় আরও কিছু ব্যারিকেড করা ছিল, সেই ব্যারিকেডও কৃষকরা নির্দ্বিধায় ভেঙ্গে  এগিয়ে যেতে থাকে। ট্র্যাক্টর নিয়েই রাস্তার ডিভাইডার টপকে যান তাঁরা। পুলিশের কোনো বাধা তাঁরা আর মানতে রাজি ছিলেন না। ওই মিছিলে ৫০০০এর বদলে অংশ নিয়েছিল প্রায় তিন লক্ষ ট্র্যাক্টর। 

পুলিশ বিভিন্ন রাস্তায় বড় বড় বাস ও ডাম্পারগুলিকে আড়াআড়িভাবে রেখে রাস্তা অবরুদ্ধ করার চেষ্টা করলেও তা বিফলে যায়। বিক্ষোভকারী কৃষকরা বেশ কিছু বাসে ভাংচুর চালায়। পাঞ্জাব ও হরিয়ানার কৃষকরা খোলা তরোয়াল নিয়ে মিছিলে ঘুরে বেড়াতে থাকেন এবং স্লোগান দিতে থাকেন। কৃষকদের মিছিল সম্পূর্ণভাবে নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে দেখে পুলিশ বিভিন্ন জায়গায় লাঠিচার্জ করে। দিল্লীর অক্ষরধাম, ময়ূরবিহার এবং অন্যান্য জায়গায় কৃষকদের আটকানোর চেষ্টা করে চলেছে পুলিশ। ছোঁড়া হয়েছে কাঁদানে গ্যাস। 

দিল্লীর রাজপথে পুলিশের দিকে কৃপাণ বা তরোয়াল হাতেও কৃষকদের ছুটে যেতে দেখা গিয়েছে বেশ কিছু জায়গায়। কৃষকদের এই আন্দোলনের কোনো নেতা নেই, যিনি গোটা আন্দোলনকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন। সব মিলিয়ে প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন চূড়ান্ত বিশৃঙ্খলা দেখা দিয়েছে রাজধানী দিল্লীতে। রীতিমত যুদ্ধক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে রাজধানী দিল্লী।

Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages