তৃণমূলের অন্দরে বিপর্যয়, তবু লড়াইয়ের তোড়জোড় - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


তৃণমূলের অন্দরে বিপর্যয়, তবু লড়াইয়ের তোড়জোড়

Share This

তৃণমূলের অন্দরে বিপর্যয়, তবু লড়াইয়ের তোড়জোড়


আজ খবর (বাংলা), কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ, ১৭/১২/২০২০ :  শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের রাজনীতিতে তোলপাড় চলছে। আজ শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূল দলত্যাগ করার সাথে সাথেই বঙ্গ রাজনীতিতে বড়সড় পরিবর্তন আসতে  চলেছে বলে মনে করা হচ্ছে।

বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ইতিমধ্যেই বলেছেন,  রাজ্য রাজনীতিতে  বড়সড় 'ধামাকা' হতে চলেছে। কিন্তু কি সেই ধামাকা, সেটা তিনি খোলসা করে বলেন নি। তবে এই মুহূর্তে রাজ্য রাজনীতিতে একটা তোলপাড় চলছে সেটা সবাই বুঝতে পারছেন। আর এই তোলপাড়ের ঘটনা ঘটছে  দিচ্ছেন শুভেন্দু অধিকারীকে কেন্দ্র করে। শুভেন্দু একসময় যুব তৃণমূল কংগ্রেসকে নেতৃত্ব দিয়েছেন, পরবর্তীকালে তাঁকে সেই জায়গা থেকে সরিয়ে দিয়েছিল তৃণমূল। দলের প্রতি সেদিন  যে ক্ষোভ দানা বেঁধেছিল, আজ তৃণমূল দল ত্যাগ করে তৃণমূলের সাথে সব সম্পর্কে ইতি টেনে তা বুঝিয়ে দিলেন শুভেন্দু অধিকারী।

শুভেন্দু অধিকারী কোনো ছোট মাপের নেতা নন। গোটা রাজ্য জুড়ে তাঁর নামে ব্যানার পোস্টার পড়ে। গোটা রাজ্য জুড়ে তাঁর অসংখ্য অনুগামী রয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেসে থাকাকালীন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরে তিনিই ছিলেন সবচেয়ে জনপ্রিয় মুখ। আর তার প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে আজকের দিনে তাঁর দলত্যাগের পর। সূত্র মারফত যে খবর পাওয়া যাচ্ছে, অন্তত ১৪ জন বিধায়ক এবং ২ জন সাংসদ শুভেন্দু অধিকারীর মত দল ছাড়তে চলেছেন, এই বিধায়কদের মধ্যে ২ জন আবার রাজ্যের মন্ত্রী বলে জানা যাচ্ছে। 


তবে এই মুহূর্তে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে, শুভেন্দুবাবুর দলত্যাগের পর গোটা রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় অনেক মানুষ তৃণমূল দল ত্যাগ করতে শুরু করে দিয়েছেন। মালদহ, মুর্শিদাবাদ বা অন্যান্য জেলায় শুভেন্দু তৃণমূলের হয়ে যে সংগঠন মজবুত করে রেখেছিলেন সেইসব জেলা থেকেই দলত্যাগের খবর পাওয়া যাচ্ছে বেশি করে। শুভেন্দু অধিকারীর পর দলের বিরুদ্ধে বেসুরো কথা বলতে দেখা গিয়েছে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, জিতেন্দ্র তেওয়ারি সহ অন্যান্য নেতাদের। তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে ইতিমধ্যেই যোগ দিয়েছেন কোচবিহারের বিধায়ক মিহির গোস্বামী। আজ দল ছেড়ে দিলেন তৃণমূলের কোর  কমিটির সদস্য কর্নেল দীপতাংশু চৌধুরী। সাউথ বেঙ্গল স্টেট্ ট্র্যান্সপোর্টের চেয়ারম্যানের পদও তিনি ছেড়ে দিয়েছেন। এভাবে বহু নেতাই বেসুরো গাইছেন দলের বিরুদ্ধে।

দিলীপ ঘোষের বক্তব্য অনুযায়ী 'ধামাকা' ঠিক কি তা বোঝা না গেলেও যেভাবে তৃণমূল দলে এই মুহূর্তে সুনামি আসতে  শুরু করেছে, তা কিন্তু শাসক দলের কাছে বেশ বিপজ্জনক হয়ে উঠতে চলেছে। যদিও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে এবং দলের অন্যান্য নেতৃত্ব এই বিষয়টিকে আদৌ বিপর্যয় বলে মানতে রাজি নন, বরং আগামী নির্বাচনে আরও ভাল করে লড়াই করার প্রস্তুতি করতে কোমর বেঁধে নেমে পড়েছে তৃণমূল কংগ্রেস।

 

Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages