বিজেপি ও শুভেন্দু অধিকারীকে চূড়ান্ত আক্রমন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


বিজেপি ও শুভেন্দু অধিকারীকে চূড়ান্ত আক্রমন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের

Share This

বিজেপি ও শুভেন্দু অধিকারীকে চূড়ান্ত আক্রমন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের


আজ খবর (বাংলা), ডায়মন্ড হারবার, পশ্চিমবঙ্গ, ২৭/১২/২০২০ :  আজ ডায়মন্ড হারবারে জনসভা করতে গিয়ে সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় প্রত্যাশা মতোই আগাগোড়া আক্রমন শানালেন বিজেপির বিরুদ্ধে। তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যাওয়া শুভেন্দু অধিকারীকে নাম না করে তুমুল আক্রমন করেছেন অভিষেক।

আজ ডায়মন্ড হারবারে রবিবাসরীয় জনসভা থেকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, "করোনা ভাইরাসের আবহ দেখিয়ে নরেন্দ্র মোদী কেন সাধারণ মানুষের উন্নয়নের টাকা দেওয়া বন্ধ করে দিলেন ? আমি বলছি, আমাকে সাংসদ ভাতা  দিতে হবে না। দরকার হলে সব সাংসদদের ভাতা বন্ধ করে দিন কিন্তু মানুষের উন্নয়নের টাকা বন্ধ করবেন না। দয়া করে কোরোনার দোহাই দেবেন না। " 

অভিষেক বলেন, "এই ডায়মন্ড হারবারেই বিজেপির সর্ব ভারতীয় সভাপতি নাড্ডা জনসভা করে গিয়েছেন, তাঁকে মিনিবাসে করে লোক আনতে  হয়েছিল। আমার জনসভায় বাইরে থেকে লোক আনতে হয় না। আমার সভায় মাঠ উপচে পড়েছে। আর নাড্ডা মিনিবাসে করে দুষ্কৃতী নিয়ে আসেন। ক্ষোভ থেকে কিছু মানুষ তাঁর কনভয়ে ইঁট  মারে, আমি বলব আপনারা ইঁট  মারবেন না, আপনারা ইভিএম-এ এর যোগ্য জবাব দেবেন।"

অভিষেক আরও বলেন, "ওরা বার বার আমাকে আক্রমন করছে। আমার নাম নিয়ে আক্রমন করার সাহস নেই। খালি বলছে তোলাবাজ ভাইপো। সারদা নারদায় আমার নাম নেই, তোমাদের নাম আছে, তাহলে কিভাবে আমাকে বলছ তোলাবাজ ? তোলাবাজ তোমরাই। আমি ইডি, সিবিআই বা অন্য কোনো এজেন্সিকে ভয় পাই না। প্রমাণ করে দেখাও আমি তোলাবাজ, তাহলে আমার পিছনে কোনো এজেন্সি লাগাতে হবে না। আমি নিজেই গিয়ে ফাঁসির দড়ি গলায় দিয়ে আত্মহত্যা করে নেব। "

নাম না করে শুভেন্দু অধিকারীকে আক্রমন শানিয়ে অভিষেক বলেন, "আবার বলছে অমিত শাহ আমার দাদা, তাহলে অমিত শাহের ছেলে কি তোমার ভাইপো ? বলছে ২১ বছর ধরে দলটা করেছি বলে লজ্জা লাগে। তোমার বাড়িতে তোমার বাবা এবং ভাই তো এখনো দলটা করছে। তাহলে তখন তোমার লজ্জা লাগছে না ? একই বাড়িতে থাকতে লজ্জা করছে না ? বাড়িতেই পদ্মফুল ফোটাতে পারছে না, সে এসেছে রাজ্যে পদ্মফুল ফোটাতে !"

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, "জেনে রাখবেন, যতক্ষন নন স্ট্রাইকার এন্ডে শচীন তেন্ডুলকর ক্রিজে থাকবে, ততক্ষণ বিপক্ষের বুক যেমন ভয়ে কাঁপে, তেমন নন স্ট্রাইকার এন্ডে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যতদিন আছে, তাদিন বিরোধহীদের বুকও ভয়ে কাঁপবে। কেননা মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেখে ভোট দেন। আমাদের সরকারের প্রকল্প দুয়ারে সরকার দেখে দিলীপ ঘোষ আর মুকুল রায়দের গা জ্বলে যাচ্ছে, কেননা  মানুষ পরিষেবা পাচ্ছে। ঘাস কেটে যেমন শেষ করা যায় না, আরও ঘাস গজিয়ে যায়, তেমন আমাদের দু চারটেকে নিয়ে গেলেও তৃণমূল দল শেষ হয়ে যাবে না। এতো আর পদ্মফুল নয় যে কয়েকদিনেই শুকিয়ে যাবে ! বিরোধীরা জেনে রাখো মমতার নখের যোগ্য হতে তোমাদের ৭ জন্ম নিতে হবে। আগামী নির্বাচনে ঘাস ফুলই ফুটবে, পদ্ম নয়।"

Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages