৫০০টি বেসরকারী প্রতিষ্ঠানকে উৎসাহ ভিত্তিক সহায়তা দেবে ক্রীড়া মন্ত্রক - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


৫০০টি বেসরকারী প্রতিষ্ঠানকে উৎসাহ ভিত্তিক সহায়তা দেবে ক্রীড়া মন্ত্রক

Share This

৫০০টি বেসরকারী প্রতিষ্ঠানকে উৎসাহ ভিত্তিক সহায়তা দেবে ক্রীড়া মন্ত্রক


আজ খবর (বাংলা), নতুন দিল্লী, ভারত, ১৫/১১/২০২০ : খেলো ইন্ডিয়া প্রকল্পের আওতায় ২০২০ – ২১ অর্থবর্ষ থেকে পরবর্তী ৪ বছরে ক্রীড়া মন্ত্রক ৫০০টি বেসরকারী প্রতিষ্ঠানকে উৎসাহ দানের জন্য আর্থিক সাহায্য দেবে। ভারতে এধরণের উদ্যোগ এটিই প্রথম।

বেসরকারী প্রতিষ্ঠানগুলিকে এক্ষেত্রে কয়েকটি ভাগে শ্রেণীবিভক্ত করা হবে। এর জন্য যে বিষয়গুলি বিবেচিত হবে সেগুলি হল : ঐ প্রতিষ্ঠানের থেকে প্রশিক্ষিত খেলোয়াড়দের সাফল্য, প্রতিষ্ঠানে কোচেদের মান, খেলার মাঠ ও অন্যান্য আনুসঙ্গিক পরিকাঠামোর মান, ক্রীড়া বিজ্ঞান অনুসারে বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা ও ঐ প্রতিষ্ঠানের কর্মচারী।  ২০২৮ সালের অলিম্পিক প্রতিযোগিতার কথা বিবেচনা করে ১৮টি খেলা চিহ্নিত করে প্রথম পর্যায়ে যে সব প্রতিষ্ঠান এই সাহায্য পাবে তাদের বাছাই করা হবে ।  

কেন্দ্রীয় যুব বিষয়ক ও ক্রীড়া মন্ত্রী শ্রী কিরেন রিজিজু বলেছেন, দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে সম্ভাবনাময় খেলোয়াড়দের শনাক্ত করতে সরকার, এই প্রতিষ্ঠানগুলিকে সাহায্য করবে। দেশের বিভিন্ন জায়গায়, প্রতিভাবান খেলোয়াড়দের চিহ্নিত করে তাদের প্রশিক্ষিত করার প্রশংসনীয় কাজ ছোট ছোট প্রতিষ্ঠানগুলি করে আসছে। এই উদ্যোগের ফলে এই সব প্রতিষ্ঠান উৎসাহিত হবে।

অলিম্পিক পদকজয়ী গগণ নারাং “গান ফর গ্লোরি” নামে গগণ নারাং স্পোর্টস প্রমোশন ফাউন্ডেশনের আওতায় একটি বেসরকারী প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করেন। শ্রী রিজিজু এই প্রসঙ্গে বলেছেন, বেসরকারী স্তরে এধরণের প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার লক্ষ্যে এটি একটি ইতিবাচক পদক্ষেপ। এর ফলে বিশ্বমানের পরিকাঠামো তৈরি করে সেখান থেকে আন্তর্জাতিকমানের খেলোয়াড় গড়ে তোলা যাবে।

সাই এবং এনএসএফ একযোগে এই প্রকল্পে কাজ করবে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শ্রেণী বিন্যাসের জন্য এই সংস্থা দুটি প্রথমে আলোচনা চালাবে। এর পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে, কোন কোন প্রতিষ্ঠানকে কোন ক্ষেত্রে আর্থিক সাহায্য দেওয়া হবে। প্রশিক্ষণের গুণমান বিচার করার জন্য সব প্রতিষ্ঠানে ক্রীড়া বিজ্ঞানের নিয়মগুলি মানা হচ্ছে কিনা তার উপর বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হবে।  

জাতীয় ব্যাডমিন্টন কোচ পুল্লেলা গোপীচাঁদ সরকারকে এই উদ্যোগের জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, এর ফলে ক্রীড়া জগতের সব ধরণের খেলোয়াড় উপকৃত হবেন।  

Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages