রিপাবলিক টিভি কর্তা অর্ণব গোস্বামীকে গ্রেপ্তার করে গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভকেই অবরুদ্ধ করা হল - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


রিপাবলিক টিভি কর্তা অর্ণব গোস্বামীকে গ্রেপ্তার করে গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভকেই অবরুদ্ধ করা হল

Share This

রিপাবলিক টিভি কার্তা অর্ণব গোস্বামীকে গ্রেপ্তার করে গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভকেই অবরুদ্ধ করা হল


আজ খবর (বাংলা) মুম্বই, মহারাষ্ট্র , ০৪/১১/২০২০ : শেষমেশ রাজনীতির প্যাঁচে গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভকে শৃঙ্খলাবদ্ধ  করা হল।আজ সকালে বিনা সমনে অতর্কিতে রিপাবলিক টিভি চ্যানেলের এডিটর ইন চিফ তথা সাংবাদিক অর্ণব গোস্বামীর বাড়িতে ঢুকে তাঁকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে নিয়ে গেল।  

২০১৮ সালে এক ইন্টেরিয়র ডিজাইনার অভয় নায়েকের আত্মহত্যার মামলায় তাঁকে অভিযুক্ত হিসেবে গ্রেপ্তার করল পুলিশ।  প্রমাণাভাবে আগেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল এই মামলা। কিন্তু আজ সেই বন্ধ হয়ে যাওয়া পুরোন ফাইল ফের একবার খুলে গ্ৰেপ্তার  করা হল অর্ণবকে। একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে গ্রেপ্তারির সময় কোনো সমন না  থাকায় পুলিশের সাথে বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়েন অর্ণব। তারপর একরকম জোর  তাঁকে গ্রেপ্তার করে প্রিজন ভ্যানে তোলে মুম্বই পুলিশ।

অর্ণব গোস্বামী অভিযোগ করেছেন, তাঁকে গ্রেপ্তারির সময় বল প্রয়োগ করা হয়েছে, তাঁর ছেলে ও তাঁকে মারা হয়েছে, প্রিজন ভ্যানে তোলার পরেও তাঁকে মারা হয়েছে। তাঁর বাড়িতে পুলিশ গিয়ে চরম দুর্ব্যবহার করেছে। বেশ কয়েকমাস ধরেই অর্ণব গোস্বামীর নেতৃত্বে রিপাবলিক টিভি মহারাষ্ট্রের উদ্ভব সরকারের বিরোধিতা করে প্রতিবাদ জানিয়ে আসছিল। বিশেষ করে মহারাষ্ট্রের পালঘরে নিরীহ সাধু হত্যা এবং অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের রহস্যমৃত্যু নিয়ে মহারাষ্ট্র সরকারের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছিলেন সাংবাদিক অর্ণব গোস্বামী। যার ফলে উদ্ভব সরকারের বারংবার হুমকির মুখে পড়তে হচ্ছিল অর্ণবকে। তবু তিনি দমে না গিয়ে সাধারণ মানুষের সামনে সত্য প্রকাশ করার শপথ গ্রহণ করেছিলেন, এবং সেভাবেই সংবাদ প্রচার করে আসছিলেন।

আজ যেভাবে একজন সাংবাদিককে বন্ধ হয়ে যাওয়া পুরোন  মামলায় কোনো রকম সমন ছাড়াই গ্রেপ্তার করা হল, তাতে চমকে উঠেছে গোটা দেশ। কোনো সরকার এভাবে সংবাদ মাধ্যমের মুখ বন্ধ করে দিতে পারে ?  যদি অর্ণব মিথ্যা সংবাদ প্রচার করত, তাহলে তা খন্ডন করে সেই অভিযোগেই তাঁকে গ্রেপ্তার করা যেতে পারত।  কিন্তু মহারাষ্ট্র সরকার সেই পথে হাঁটে নি। প্রমাণাভাবে বন্ধ হয়ে যাওয়া পুরোন  একটি মামলায় আজ অর্ণবকে গ্রেপ্তার করা হল। সেইসঙ্গে  অবরুদ্ধ করা হল সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতা, যা কিনা দেশের কাছে অত্যন্ত ক্ষতিকর। 

যেভাবে আজ সাংবাদিক অর্ণব গোস্বামীকে গ্রেপ্তার করে সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতা হরণ করল মহারাষ্ট্র সরকার, যেভাবে কলুষিত করা হল গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভকে, তা অত্যন্ত বিভ্রান্তিকর এবং লজ্জাজনক। এ যেন ফের দেশের এমার্জেন্সি অবস্থাকেই মনে করিয়ে দেওয়া হচ্ছে। যে কোনো সরকার যা খুশি তাই করে যাবে, অথচ সংবাদ মাধ্যম সত্য প্রকাশ করতে পারবে না ! দেশের গণতন্ত্রের পক্ষে এই বিষয়টি বেশ বিপজ্জনক.। সংবাদ মাধ্যমকে এভাবে হেনস্থা করার প্রতিবাদ ও তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে  'আজ খবর'। 


Please Call at 8420807020 to place your advertisements in AAJ KHABOR

Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages