২০২০র মধ্যেই করোনা শেষ হয়ে যাক চাইছে কেন্দ্র সরকার - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


২০২০র মধ্যেই করোনা শেষ হয়ে যাক চাইছে কেন্দ্র সরকার

Share This

২০২০র মধ্যেই করোনা শেষ হয়ে যাক চাইছে কেন্দ্র সরকার


আজ খবর (বাংলা), নতুন দিল্লী, ভারত, ০৬/১১/২০২০ :  ২০২০-র মধ্যে চিরতরে দূর করা যাক,  চলতি বছরের শেষ নাগাদ কোভিড সংক্রমণের গতি রোধ করতে প্রধানমন্ত্রীর জনআন্দোলন সফলভাবে রূপায়ণের জন্য দিল্লির প্রশংসা করলেন ডাঃ হর্ষবর্ধন। 

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী ডাঃ হর্ষবর্ধন আজ দিল্লির উপ-রাজ্যপাল শ্রী অনীল বাইজল, স্বাস্থ্য মন্ত্রী শ্রী সত্যেন্দ্র কুমার জৈন এবং উচ্চ পদস্থ আধিকারিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন । প্রধানমন্ত্রীর জনআন্দোলন সফল করে তোলার জন্য দিল্লি সরকার সাধারণ মানুষকে মাস্কের ব্যবহার, দৈহিক দূরত্ব বজায় রাখা ও বারবার হাত পরিষ্কার রাখার মতো বিষয়গুলিকে সচেতন করে তোলার যে উদ্যোগ নিয়েছে, তিনি তার প্রশংসা করেন। ডাঃ হর্ষবর্ধন কোভিড সঙ্কট কার্যকরভাবে মোকাবিলায় সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের উল্লেখ করেন। তিনি জানান, দিল্লির উত্তর, মধ্য, উত্তর-পূর্ব, পূর্ব, উত্তর-পশ্চিম ও দক্ষিণ-পূর্ব জেলাগুলিতে সংক্রমণের হার এখনও বেশি। এজন্য  তিনি নমুনা পরীক্ষার হার বাড়ানো এবং সংক্রমণ প্রতিরোধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন।

ডাঃ হর্ষবর্ধন এক পরিসংখ্যান দিয়ে বলেন, বর্তমানে ভারতে সুস্থতার হার ৯২ শতাংশের বেশি। অন্যদিকে, দিল্লিতে এই হার ৮৯ শতাংশ। একইভাবে, জাতীয় স্তরে করোনাজনিত কারণে মৃত্যু হার যেখানে ১.৪৯ শতাংশ, তুলনায় দিল্লিতে হার ১.৭১ শতাংশ। কোভিড টিকাকরণ প্রসঙ্গে তিনি জানান, আগামী বছরের মাঝামাঝি নাগাদ স্বাস্থ্য কর্মীদের পাশাপাশি, ২০-২৫ কোটি ভারতীয়কে টিকা দেওয়ার ব্যাপারে সরকার অঙ্গীকারবদ্ধ। 

ন্যাশনাল সেন্টার ফর ডিজিস কন্ট্রোলের নির্দেশক ডঃ সুজিত সিং বলেন, আসন্ন উৎসবের সময় এবং শীতের মরশুমে দিল্লির স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষকে আরও বেশি সজাগ থাকতে হবে। এজন্য তিনি কোভিড-১৯ রোগীদের গুণগতমানের চিকিৎসা পরিষেবা প্রদানের বিভিন্ন দিক খতিয়ে দেখার জন্য চিকিৎসা বিশেষজ্ঞদের নিয়ে একটি দল গঠনের পরামর্শ দেন।

পর্যালোচনা বৈঠকে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য সচিব শ্রী রাজেশ ভূষণ বলেন, করোনায় আক্রান্তদের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদেরকে ৭২ ঘন্টার মধ্যে চিহ্নিত করতে হবে, যাতে সংক্রমণ আরও ছড়ানোর আগেই তাঁদের চিকিৎসা পরিষেবার আওতায় নিয়ে আসা যায়। তিনি দিল্লি প্রশাসনকে প্রয়োজন-ভিত্তিতে প্রতিরক্ষা বিভাগের হাসপাতালে স্থানান্তরিত করার এবং সঙ্কটাপন্ন রোগীদের আইসিইউ পরিষেবা প্রদানের পরামর্শ দেন। বৈঠকে দিল্লির মুখ্যসচিব শ্রী বিজয় কুমার দেব, স্বাস্থ্য বিষয়ক অতিরিক্ত সচিব শ্রীমতী আরতী আহুজা ও মন্ত্রকের উচ্চ পদস্থ আধিকারিকরা অংশ নেন। 

Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages