সামন্ত রাজ্যগুলিকে একত্রিত করে ভারতের অভ্যন্তরে আনার পেছনে সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের ভূমিকা অবিস্মরণীয় : তথাগত - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


সামন্ত রাজ্যগুলিকে একত্রিত করে ভারতের অভ্যন্তরে আনার পেছনে সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের ভূমিকা অবিস্মরণীয় : তথাগত

Share This

সামন্ত রাজ্যগুলিকে একত্রিত করে ভারতের অভ্যন্তরে আনার পেছনে সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের ভূমিকা অবিস্মরণীয় : তথাগত


আজ খবর (বাংলা), কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ  ০২/১১/২০২০ : দেশের লৌহ মানব হিসাবে পরিচিত সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের জন্মবার্ষিকীতে তাঁর প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানালো প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরো, কলকাতা। 

আজ সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের জন্মদিন উপলক্ষে একটি ওয়েবিনারের আয়োজন করে এই দপ্তর। ওয়েবিনারের বিষয় ছিল – সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল এবং ভারতকে আত্মনির্ভর দেশ হিসাবে তোলায় তাঁর ভাবনা। এই ওয়েবিনারে বক্তব্য রেখে মেঘালয়, ত্রিপুরা ও অরুণাচল প্রদেশের প্রাক্তন রাজ্যপাল শ্রী তথাগত রায় বলেন, ৫৬০টিরও বেশি সামন্ত রাজ্যকে সমন্বিত করে ভারতের অন্তর্গত করার পেছনে সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের ভূমিকা অবিস্মরণীয়। তাঁর এই প্রয়াসের ফলেই এক ঐক্যবদ্ধ ভারতের চিত্র আজ আমাদের সামনে উঠে এসেছে। এই কারণে সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলকে ভারতের বিসমার্ক-ও বলা হয়। শ্রী রায় এই সামন্ত রাজ্যগুলির সমন্বয় সাধনের ইতিহাস ব্যাখ্যা করে বলেন, সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের রাষ্ট্রনায়কোচিত ভাবনা, চিন্তাধারা এবং চাণক্যের মতো কূটনৈতিক বুদ্ধি প্রয়োগের ফলেই এই অসম্ভব সম্ভব হয়েছে। যদিও জুনাগড়, হায়দরাবাদ এবং ত্রিপুরা কখনই ভারতের অন্তর্ভুক্ত হতে চাইনি। তবে, যে গণভোট হয়েছিল সামন্ত রাজ্যগুলির অন্তর্ভুক্তির প্রয়োজনকে সমর্থন করে সেই গণভোটে ৯৯.৫ শতাংশ মানুষই এই রাজ্যগুলি ভারতের অন্তর্ভুক্ত হওয়ার পক্ষে রায় দেয়। কথা প্রসঙ্গে শ্রী রায় জানান, কিভাবে বাকি তিনটি রাজ্যকে বুদ্ধিবলে এবং কৌশল অবলম্বন করে ভারতের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। এ প্রসঙ্গে তিনি ‘স্ট্যান্ড স্টিল এগ্রিমেন্ট’ যেটি নিজামরা স্পর্ধা দেখিয়ে উপেক্ষা করেছিলেন, সেই প্রসঙ্গটিও উত্থাপন করেন। তিনি বলেন, ১৯৫০ সালে চীনের সেনাবাহিনী যখন তিব্বত আক্রমণ করে, তখন তিব্বতকে সহায়তা দেওয়ার জন্য সর্দার প্যাটেলের মতামতকে গুরুত্ব দেওয়া হলে ভারতের অবস্থান সুদৃঢ় হ’ত।

ইন্ডিয়ান ইন্সটিটিউট অফ ম্যানেজমেন্ট, কলকাতার অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক ডঃ অম্বুজ মহান্তি বলেন, সর্দার প্যাটেলই আমাদের শিখিয়েছেন, দেশকে আত্মনির্ভর করতে হলে অপচয় বন্ধ করে কিভাবে সঞ্চয় করা যায়। তিনি এ প্রসঙ্গে পূর্ব পাকিস্তানের জন্মকালে জনবিনিময় সঠিকভাবে হলে ৪০ শতাংশ ঋণের দায় এড়ানো সম্ভব হ’ত বলেও তিনি জানান। 

সাংবাদিক শ্রী রন্তিদেব সেনগুপ্ত বলেন, পূর্ব ও পশ্চিম পাকিস্তানের শরণার্থীদের ভারতে আশ্রয় দেওয়া এবং তাঁদের যথাযথ জীবিকার ব্যবস্থা করে দেওয়ার ভাবনা-চিন্তা করেছিলেন সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল। তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী সর্দার প্যাটেলের মার্গ অনুসরণ করে নাগরিকত্ব সংশোধন আইন রূপায়ণে প্রয়াসী হয়েছেন। ভাষণ প্রসঙ্গে শ্রী সেনগুপ্ত গুজরাটের খেরা গ্রামের কৃষকদের সমর্থনে সর্দার প্যাটেল যে আন্দোলন চালিয়েছিলেন, সেকথাও উল্লেখ করেন।

বেলুর রামকৃষ্ণ মিশন আবাসিক কলেজের সহ-অধ্যাপক সুশোভন সেনগুপ্ত সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের অসাধারণ সাংগঠনিক ক্ষমতার কথা উল্লেখ করে বলেন, আধুনিক সারা ভারত প্রশাসনিক পরিষেবা সৃষ্টির পেছনে সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের প্রয়াস অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবে। সর্দার প্যাটেল বলেছিলেন, ভারতের আমলারা আইন-শৃঙ্খলা বা প্রশাসনিক কাজকর্মেই শুধু লিপ্ত থাকবেন না, তাঁরা সমাজকে একসূত্রে বেঁধে রাখার কাজটিও নিরপেক্ষ এবং দায়বদ্ধতার সঙ্গে দুর্নীতিমুক্তভাবে করবেন।

প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরোর প্রিন্সিপাল ডাইরেক্টর জেনারেল শ্রী রবীন্দ্রনাথ মিশ্র স্বাগত ভাষণ দেন এবং এই দপ্তরের অতিরিক্ত মহানির্দেশিকা শ্রীমতী জেন নামচু সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

  

Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages