ব্যবসা বাণিজ্য বাড়াতে এবার কলকাতার শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জি বন্দরকে ডিজিটালাইজ করা হল - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


ব্যবসা বাণিজ্য বাড়াতে এবার কলকাতার শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জি বন্দরকে ডিজিটালাইজ করা হল

Share This
ব্যবসা বাণিজ্য বাড়াতে এবার কলকাতার শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জি বন্দরকে ডিজিটালাইজ করা হল


আজ খবর (বাংলা),  কলকাতা,  পশ্চিমবঙ্গ,  ২৯/০৯/২০২০  :   পশ্চিমবঙ্গ  থেকে  ব্যবসা  বাণিজ্য  বৃদ্ধি করতে এবার কলকাতার শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জি বন্দরকে ডিজিটালাইজ করা হল
ভারতীয়  ব্যবসা-বাণিজ্যে  ডিজিটাল  পদ্ধতির  সাহায্যে কাজকর্ম করা ক্রমশ বাড়ছে। তাই লজিস্টিকসের ক্ষেত্রেও ডিজিট্যাল পদ্ধতির অনুসরণ করা হচ্ছে একই রকম ভাবে। সহজে ব্যবসা-বাণিজ্য করার ক্রমতালিকার উন্নতিতে এবং লজিস্টিকস ক্ষেত্রে পারফরমেন্সের সুযোগ বাড়াতে বেশ কিছু ডিজিটাল উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। 

জাহাজ চলাচল মন্ত্রকের অন্তর্গত কলকাতাস্থিত শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জী বন্দর তার দক্ষতা, উৎপাদনশীলনতা এবং স্বচ্ছতা বাড়ানোর জন্য ডিজিটাল পদ্ধতি ব্যবহার শুরু করেছে পুরোদমে। এই তথ্য জানিয়ে বন্দরের চেয়ারম্যান শ্রী বিনীত কুমার আর-ও বলেছেন রেডিও ফ্রিকোয়েন্সির মাধ্যমে শনাক্তকরণ পদ্ধতির সাহায্যে পোর্ট অ্যাক্সেস কন্ট্রোল সিস্টেম কলকাতা এবং হলদিয়া ডকে কাজ করছে। এর ফলে, বন্দরের প্রবেশপথে নিরাপত্তা বৃদ্ধি করা হয়েছে এবং একই সঙ্গে যানজটের সমস্যার-ও মোকাবিলা করা গেছে। যাঁরা বন্দর ব্যবহার করেন তাঁরা অনুমতি এবং পাশ সংগ্রহ করার জন্য নগদবিহীন প্রক্রিয়ায় এক জানালা ব্যবস্থার সুযোগ পাচ্ছেন। কাগজের মাধ্যমে তথ্যের আদান-প্রদান বন্ধ করতে এই বন্দর বৈদ্যুতিন পদ্ধতি ব্যবহার করছে। ইলেকট্রনিক ডেলিভারি অর্ডার জারির ক্ষেত্রে কলকাতা ডক দেশের অন্যান্য বন্দরের মধ্যে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে।

কোভিড-১৯ অতিমারীর প্রেক্ষিতে এই বন্দর লকডাউন ও শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার মতো বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয় মেনে চলছে। এছাড়াও, পোর্ট অ্যাক্সেস কন্ট্রোল সিস্টেমের সাহায্যে মালপত্রের ওজন, জাহাজে মালপত্র তোলা এবং আমদানি করা মালপত্র সড়ক পরিবহনের জন্য গাড়িতে তোলার ক্ষেত্রে ডিজিটাল প্রক্রিয়ার ব্যবহার কলকাতা ডকে ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে। হলদিয়া ডকেও খুব শীঘ্রই শুরু হতে চলেছে।

এই বন্দর ডিজিটাল প্রক্রিয়ায় ই-অফিসের সাহায্যে কাগজ-বিহীন পদ্ধতিতে পরিচালন প্রক্রিয়ার কাজ করছে। শ্রী কুমার আর-ও জানিয়েছেন সড়ক পথে এবং ইয়ার্ডে ভিড় কমানোর জন্য এবং উপকূলবর্তী এলাকায় জাহাজ চলাচল আরও মসৃণ করার উদ্দেশ্যে তারা ডিজিটাল পদ্ধতি শুরু করবেন। দেশে লজিস্টিকস ক্ষেত্রে ডিজিটালাইজেশন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এরসঙ্গে বন্দরের আধুনিকীকরণের প্রক্রিয়াও যুক্ত। সংশ্লিষ্ট সকলের সঙ্গে সহযোগিতা বৃদ্ধি করতে এই বন্দর ডিজিটাল পদ্ধতি এবং স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থাপনা গ্রহণ করছে। এর সাহায্যে পরিচালনগত দক্ষতা আর-ওবৃদ্ধি পাবে।

Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages