প্রযুক্তি ও সংস্কৃতির মেলবন্ধন, খড়গপুরে চালু হল 'ফোক আর্টসের কলেজ' - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


প্রযুক্তি ও সংস্কৃতির মেলবন্ধন, খড়গপুরে চালু হল 'ফোক আর্টসের কলেজ'

Share This
প্রযুক্তি ও সংস্কৃতির মেলবন্ধন, খড়গপুরে  চালু হল ফোক আর্টসের কলেজ


আজ খবর (বাংলা), খড়্গপুর, পশ্চিমবঙ্গ, ১৯/০৮/২০২০ : আইআইটি শিক্ষা ব্যবস্থায় নতুন সংযোজন। এই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের সৃজনশীল প্রতিভাকে উৎসাহিত করতে সঙ্গীত ও ফাইন আর্টসের ওপর চর্চা করার জন্য অ্যাকাডেমি অফ ক্ল্যাসিক্যাল অ্যান্ড ফোক আর্টসের প্রতিষ্ঠা করা হল। পন্ডিত অজয় চক্রবর্তী অনলাইনের মাধ্যমে এই অ্যাকাডেমির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে  বক্তব্য রাখেন। তিনি আইআইটি খড়গপুরের একজন পরামর্শদাতাও বটে।      

সঙ্গীত, ফাইন আর্টস-সহ অন্যান্য পারফর্মিং আর্টসের বিষয়ে ছাত্রছাত্রীদের এই অ্যাকাডেমিতে  নিয়মিত প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। অ্যাকাডেমির এমওওসি পাঠক্রম সৃজনশীল মানসিকতাকে লালিত করবে। ভারতীয় ধ্রপদী সঙ্গীতের কথা বিবেচনা করে এই অ্যাকাডেমিতে সঙ্গীত এবং অন্যান্য শিল্পকলার বিষয়ে বিজ্ঞান ও প্রযু্ক্তির সঙ্গেই সেগুলির মেলবন্ধন ঘটানোর প্রক্রিয়া নিয়ে গবেষণা চালানো হবে। এরফলে, দেশের সমৃদ্ধশালী শিল্প ঘরানাকে রক্ষা করা যাবে। কম্পিউটার সায়েন্স ও ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক এবং অ্যাকাডেমির দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক অধ্যাপক পল্লব দাশগুপ্ত জানান, আমাদের চিরায়ত বিভিন্ন শিল্পের বিষয়ে এই অ্যাকাডেমি থেকে শিক্ষাদান করা হবে। যার মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীদের বৈজ্ঞানিক উৎকর্ষতা অর্জনের ক্ষেত্রে এই চর্চা সহায়ক হয়ে উঠবে। পন্ডিত অজয় চক্রবর্তী বলেন, ভারত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির শীর্ষে তখনই পৌঁছাতে পারবে, যখন, তরুণ মনের উদ্ভাবনী শক্তি জাগ্রত হবে। সঙ্গীত শিক্ষার আধুনিক ধারা౼ যেটি পন্ডিত চক্রবর্তী দীর্ঘদিন ধরে চর্চা করছেন, সেই ধারাটির মাধ্যমে  তরুণ প্রজন্মের সৃজনশীল মানসিকতা উদ্বুদ্ধ  হবে। নিছক অনুকরণ করলে কোনও কিছুই সঠিকভাবে শেখা যায়না, এমনকি সঙ্গীতও নয় বলে শ্রী চক্রবর্তী মনে করেন।      

উল্লেখ্য, পন্ডিত চক্রবর্তী এই অ্যাকাডেমিতে ১০০ রকমের রাগ সেখানোর উদ্যোগ নিয়েছেন। এর সাহায্যে ভারতীয় রাগের মূল কাঠামো সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যাবে। যার মধ্য দিয়ে সৃজনশীল শিল্পকর্মের সঙ্গে বিজ্ঞানের মেলবন্ধন-ও ঘটবে। আইআইটি খড়গপুরের ডিরেক্টর অধ্যাপক ভি কে তিওয়ারি এই প্রসঙ্গে বলেন, আইআইটির মতো একটি  জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্রছাত্রী, শিক্ষক-শিক্ষিকা ও কর্মীদের সর্বাঙ্গীন বিকাশের প্রয়োজন। অ্যাকাডেমি অফ ক্ল্যাসিক্যাল অ্যান্ড ফোক আর্টস আমাদের ছাত্রছাত্রীদের শুধুমাত্র শিক্ষাক্ষেত্রে  প্রতিযোগিতার মধ্যে আবদ্ধ রাখবে না, তাদের সৃজনশীল মননকেও  বিকশিত করবে। এর মধ্য দিয়ে তারা উদ্ভাবন ও প্রযুক্তি ক্ষেত্রে আরও দক্ষ হয়ে উঠবে। আইআইটির ডেপুটি ডিরেক্টর অধ্যাপক এস কে ভট্টাচার্য মনে করেন, আইআইটি খড়গপুরে এই অ্যাকাডেমি নতুন একটি বৈশিষ্ট্যকে সংযুক্ত করলো। আইআইটি খড়গপুর ফাউন্ডেশন,  ইউএসএ-র সদস্যরা এই অ্যাকাডেমিকে সাহায্য করছে। দীর্ঘদিন ধরে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যেসব বিখ্যাত ইঞ্জিনিয়ার ও ম্যানেজারদের তৈরি করেছে, তাদের মধ্যে অনেকে শিল্পকলাতেও পারদরশীতার  পরিচয় দিয়েছেন। স্পিক-ম্যাকের কিরণ শেঠ-সহ হরিশ হান্ডে, অর্জুন মালহোত্রা এদের মধ্যে বিশেষ উল্লেখযোগ্য।    


Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages