দেশে করোনা আক্রান্ত এবং সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যায় ফারাক মাত্র ১৮ লক্ষ - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


দেশে করোনা আক্রান্ত এবং সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যায় ফারাক মাত্র ১৮ লক্ষ

Share This

দেশে করোনা আক্রান্ত এবং সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যায় ফারাক মাত্র ১৮ লক্ষ


আজ খবর (বাংলা), নতুন দিল্লী, ভারত, ২৭/০৮/২০২০ : কার্যকরভাবে কোভিড-১৯ মোকাবিলায় ভারত 'টেস্ট, ট্র্যাক, ট্রিট' কৌশল গ্রহণ করেছে। এই কৌশলের অঙ্গ হিসেবে নমুনা পরীক্ষায় সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে যাতে আক্রান্তদের আগাম চিহ্নিত করে উপযুক্ত চিকিৎসা পরিষেবা দেওয়া যায়। সময়মতো নমুনা পরীক্ষা ও চিকিৎসা পরিষেবা প্রদানের ফলে আক্রান্তদের হাসপাতালে ভর্তি অথবা পরিবারের অন্যদের থেকে পৃথকীকরণের কাজ সহজ হয়েছে। এমনকি, আক্রান্তদের আগাম উপযুক্ত চিকিৎসা পরিষেবার আওতায় নিয়ে আসা সম্ভব হচ্ছে। পক্ষান্তরে, করোনায় মৃত্যু হার ক্রমশ কমছে। আরোগ্য লাভের সংখ্যা দ্রুত হারে বাড়ছে। 


দেশে করোনা সংক্রমণ ও প্রতিরোধে উপযুক্ত পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে আজ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা প্রায় ৩ কোটি ৯০ লক্ষ। গত ২৪ ঘন্টায় ৯ লক্ষ ২৪ হাজার ৯৯৮টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এর ফলে, মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ৮৫ লক্ষ ৭৬ হাজার ৫১০-এ।

অধিক সংখ্যায় করোনা আক্রান্ত রোগীর আরোগ্য লাভ এবং হাসপাতাল বা হোম আইসোলেশন থেকে ছাড়া পাওয়ার ফলে দেশে আরোগ্য লাভের সংখ্যা আজ পর্যন্ত ২৫ লক্ষ ছাড়িয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারের নীতিগুলি কার্যকরভাবে রাজ্য / কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে রূপায়ণের দরুণ প্রত্যাশিত সাফল্য পাওয়া গেছে। এই সাফল্যের নিদর্শনস্বরূপ করোনায় আরোগ্য লাভের সংখ্যা আজ পর্যন্ত বেড়ে হয়েছে ২৫ লক্ষ ২৩ হাজার ৭৭১। দেশে গত ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত ৫৬,০১৩ জন রোগী আরোগ্য লাভ করেছেন। এর ফলে ভারতে সুস্থতার হার আজ পর্যন্ত বেড়ে হয়েছে ৭৬.২৪ শতাংশ।

দেশে নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যার (৭ লক্ষ ২৫ হাজার ৯৯১ – এঁরা সকলেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন)  তুলনায় সুস্থতার সংখ্যা বেড়ে হয়েছে প্রায় ১৮ লক্ষ (১৭ লক্ষ ৯৭ হাজার ৭৮০)। ধারাবাহিকভাবে আরোগ্য লাভের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে দেশে মোট করোনায় আক্রান্তের ২১.৯৩ শতাংশ নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

স্বাস্থ্য মন্ত্রকের ক্লিনিকাল ম্যানেজমেন্ট প্রোটোকল অনুযায়ী, আক্রান্ত রোগীদের উপযুক্ত চিকিৎসা পরিষেবা প্রদান সুনিশ্চিত হয়েছে আইসিইউ ও হাসপাতালে চিকিৎসা পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের দক্ষতা বৃদ্ধির মাধ্যমে। এছাড়াও, সময়মতো অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা, হাসপাতালগুলিতে পর্যাপ্ত যোগান এবং সেরা চিকিৎসা পদ্ধতির প্রয়োগের ফলে জাতীয় স্তরে করোনায় মৃত্যু হার ক্রমশ নিম্নমুখী। এই হার আজ পর্যন্ত আরও কমে হয়েছে ১.৮৩ শতাংশ। ১০টি রাজ্য / কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে করোনায় মৃত্যু হার জাতীয় গড় হারের তুলনায় কম।

দেশে করোনা সঙ্কট মোকাবিলা ও আক্রান্তদের চিহ্নিতকরণের ক্ষেত্রে নমুনা পরীক্ষাগারগুলি বড় ভূমিকা নিয়েছে। এই বিষয়টিকে বিবেচনায় রেখেই নমুনা পরীক্ষাগারের সংখ্যা ক্রমশ বাড়ানো হচ্ছে। এখনও পর্যন্ত দেশে নমুনা পরীক্ষাগারের সংখ্যা ১,৫৫০। এর মধ্যে সরকারি পরীক্ষাগার ৯৯৩টি এবং বেসরকারি পরীক্ষাগারের সংখ্যা ৫৫৭।
Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages