চীনের চেংদু দূতাবাস খালি করে দিল আমেরিকা, নামিয়ে নেওয়া হল জাতীয় পতাকা - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


চীনের চেংদু দূতাবাস খালি করে দিল আমেরিকা, নামিয়ে নেওয়া হল জাতীয় পতাকা

Share This
আন্তর্জাতিক

আজ খবর (বাংলা), চেংদু, চীন, ২৭/০৭/২০২০ : দক্ষিণ চীন সাগরে চীনের সঙ্গে আমেরিকার সংঘাত প্রতিদিনই আরও জোরালো হয়ে উঠছে। এর মধ্যেই চীনের নির্দেশ মত আজ দক্ষিণ পশ্চিম চীনের  চেংদু শহরের দূতাবাস ফাঁকা করে দিলেন আমেরিকানরা।
আমেরিকার টেক্সাসে হিউস্টন শহরে চীনের দূতাবাস থেকে প্রচুর পরিমাণে ধোঁয়া বের হতে দেখে শহরের পুলিশ ও দমকল বাহিনী হাজির হয়েছিল হিউস্টনের চীনা দূতাবাসের সামনে, কিন্তু নিজেদের গোপনীয়তা বজায় রাখতে চীন তাদের ওই দূতাবাসের দরজা খুলে দেয়নি। পরে জানা গিয়েছিল চীনা দূতাবাসের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে কাগজ পত্র, তথ্য, দস্তাবেজ পুড়িয়ে ফেলা হয়েছিল। কেন এত বিপুল পরিমাণে কাগজ পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল, চীন এখনো পর্যন্ত তার জন্যে কোনো কারন দর্শায় নি। যার ফলে মার্কিন প্রশাসন ৭২ ঘণ্টার মধ্যে হিউস্টনের ওই দূতাবাস বন্ধ করে দেওয়ার নির্দেশ  দিয়েছিল। যা নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছিল চীন।
এর পরেই 'টিট ফর ট্যাট' কূটনীতি দেখাতে দক্ষিণ পশ্চিম চীনের চেংদুতে অবস্থিত মার্কিন দূতাবাসটিকেও ৭২ ঘণ্টার মধ্যে বন্ধ করে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল চীন প্রশাসন। আজ সকাল ১০টা  নাগাদ সেই ৭২ ঘণ্টার সময়সীমা  অতিক্রম করে যাওয়ার কথা ছিল। তার আগেই আজ সকাল ৬টায় (স্থানীয় সময়) চেংদুর আমেরিকান দূতাবাস থেকে সব আমেরিকানদের জিনিসপত্র নিয়ে বেরিয়ে আসতে  দেখা যায়। এরপরেই ৬:১৮ মিনিটে ওই ভবন থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্টের জাতীয় পতাকাও নামিয়ে নেওয়া হয়। এর কিছুক্ষণ পরেই চেংদুর সাধারণ মানুষকে মার্কিন দূতাবাসের সামনে ভীড় করতে দেখা যায়, যাঁরা চীনা জাতীয় পতাকা উড়িয়ে আনন্দ করছিলেন এবং সেলফি তুলছিলেন। 
চেংদুর দূতাবাস থেকে আমেরিকানদের বেরিয়ে আসা যথেষ্ট তাৎপর্যমূলক বলে মনে করা হচ্ছে। কারন এই মুহূর্তে দক্ষিণ চীন সাগরে আমেরিকা ও চীনের মধ্যে সংঘাত অনেকটাই যুদ্ধ পরিস্থিতি তৈরি করে ফেলেছে। আমেরিকার দুই বড় যুদ্ধ  জাহাজ 'রোনাল্ড রেগন' এবং 'নিমিটস' দক্ষিণ চীন সাগরে যুদ্ধ্যাভ্যাস করে চলেছে এবং একটু একটু করে চীনের দিকে এগোতে শুরু করে দিয়েছে। যা দেখে চীন আমেরিকাকে হুমকিও দিয়ে রেখেছে। চীন তাদের নৌবাহিনীকেও একটু একটু করে এগোতে বলেছে এবং গতকালই চীন তাদের নৌবাহিনীর জাহাজ থেকে হালকা মাঝারি পাল্লার মিসাইলও ছুঁড়েছে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। 
আমেরিকার আর একটি বড় যুদ্ধ জাহাজ এই মুহূর্তে ভারতের আন্দামানে রেখে দেওয়া আছে। আমেরিকার পিছনে সমর্থক হিসেবে রয়েছে জাপান, অস্ট্রেলিয়া, ভারত এবং দক্ষিণ চীন সাগরে থাকা চীনের প্রতিপক্ষ দেশগুলি। রীতিমত যুদ্ধের পরিবেশ তৈরি হয়ে দিয়েছে দক্ষিণ চীন সাগরে। এর জন্যে চীনকেই দায়ী করেছে আমেরিকা। আমেরিকার বক্তব্য চীন দিনের পর দিন আন্তর্জাতিক আইনকে উপেক্ষা করে অবৈধ কাজ করে চলেছে, তাছাড়া গোটা পৃথিবীতে করোনা ভাইরাস ছড়ানোর জন্যে চীনকেই দায়ী করেছে আমেরিকা। সব মিলিয়ে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের আবহ তৈরি হতে চলেছে বিশ্ব জুড়ে। কেননা চীন ও আমেরিকার সংঘাত শুধু এই দুই দেশের মধ্যেই থেমে থাকবে না, বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলিও এর মধ্যে লিপ্ত হয়ে উঠবে। 
Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages