সীমান্তের ওপারে প্রচুর সংখ্যক সেনা ও ট্যাঙ্ক বাড়াচ্ছে চীন - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


সীমান্তের ওপারে প্রচুর সংখ্যক সেনা ও ট্যাঙ্ক বাড়াচ্ছে চীন

Share This
আন্তর্জাতিক

আজ খবর (বাংলা ) , পিথোরাগড়, উত্তরাখন্ড, ১৭/০৬/২০২০ : চীনা সেনাদের সাথে সংঘর্ষের এক দিন পর ইন্ডিয়ান আর্মি সরকারিভাবে ঘোষণা করল ১৫ তারিখ রাত্রে চীনা সেনাদের সাথে সংঘর্ষে মোট ২০ জন ভারতীয় জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে। 
আজ ভারত ও চীনের বিদেশ মন্ত্রী টেলিফোনে নিজেদের মধ্যে ভারত-চীন সংঘাত নিয়ে কথা বলেছেন, যেখানে চীনের বিদেশমন্ত্রী গোটা ঘটনার জন্যে ভারতকেই দায়ী করতে চেয়েছে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। আজ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানিয়েছেন, "১৫ তারিখ রাত্রে  চীনের সাথে সংঘাতে ২০ জন ভারতীয় বীর জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে, তাঁদের প্রতি আমি শোক জ্ঞাপন করছি এবং অন্তরের শ্রদ্ধা জানাচ্ছি। কিন্তু এই জওয়ানদের বলিদান ব্যর্থ যাবে না। " 
গতকাল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিংহের সাথে দফায় দফায় বৈঠক করেছেন। প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং সেনাবাহিনীর তিন সেনা প্রধান এবং দেশের চিফ ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াতের সঙ্গেও বৈঠক করেছেন। প্রধানমন্ত্রী এরপর থেকে সীমান্তে কোনো আঘাত এলে যাতে সেনাবাহিনী স্বাধীনভাবে প্রত্যাঘাত করতে পারে তার জন্যে সেনাবাহিনীর হাত খুলে দিয়েছেন। অর্থাৎ এবার থেকে সীমান্তে যদি চীন কোনো সমস্যা করে তার প্রত্যুত্তর দিতে আর দিল্লীর অনুমতি নিতে হবে না সেনাবাহিনীকে।
চীনের সরকারি সংবাদ সংস্থা গ্লোবাল টাইমস জানাচ্ছে, চীনের বক্তব্য, 'ভারত যেন চীনকে আন্ডার এস্টিমেট না করে বসে। ফের এই ধরনের ঘটনা ঘটলে চীন কড়া জবাব দেবে।' গ্লোবাল টাইমস জানিয়েছে, 'চীন ইতিমধ্যেই প্রচুর পরিমাণে সেনাবাহিনী এবং সাঁজোয়া গাড়ি সীমান্তে পাঠাতে শুরু করে দিয়েছে'। স্যাটেলাইট চিত্রে ভারত দেখেছে যে, সত্যিই প্রচুর পরিমাণে সেনা চীন সীমান্তের দিকে এগিয়ে আসছে। প্রস্তুর রয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনীও। 
গত ১৫ তারিখ রাত্রে চীনের সাথে সংঘর্ষে যে ভারতীয় সেনা জওয়ানরা শহীদ হয়েছেন, তাঁদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে সেনাবাহিনীর তরফ থেকে। শহীদরা হলেন - কর্নেল বি সন্তোষ বাবু (হায়দ্রাবাদ), নুদুরাম সোরেন  (ময়ূরভঞ্জ), মনদীপ সিং (পাতিয়ালা), শতনাম সিং (গুরুদাসপুর), কে পালানি (মাদুরাই), সুনীল কুমার (পাটনা), বিপুল রায় (মিরাট) দীপক কুমার (রেওয়া ), রাজেশ ওরাং (বীরভূম), কুন্দন কুমার ওঝা (সাহেবগঞ্জ), গনেশ রাম (কাঁকের), চন্দ্রকান্ত প্রধান (কান্ধামাল), অঙ্কুশ (হামিরপুর), গুরবীন্দ্র (সাংরার ), গুরতেজ সিং (মানসা), চন্দন কুমার (ভোজপুর), কুন্দন কুমার (সাহারসা ), অমন কুমার (সামাস্তিপুর), জয় কিশোর সিং (বৈশালী), ও গনেশ হাঁসদা (পূর্ব সিংভূম).
Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages