৩ দিন সেভাবে খেতে পাইনি, হাতে টাকাও নেই তাই পায়ে হেঁটে দেশে ফিরছি - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


৩ দিন সেভাবে খেতে পাইনি, হাতে টাকাও নেই তাই পায়ে হেঁটে দেশে ফিরছি

Share This
অফবিট

আজ খবর (বাংলা), নতুন দিল্লী, ২৭/০৩/২০২০ : কাজকর্ম নেই  হাতে টাকাও নেই।  এই  অবস্থায় নিজেদের গ্রামে ফিরে যাওয়া ছাড়া অন্য কোনো উপায় নেই কিন্তু রাজধানী দিল্লী থেকে বাস, ট্রেন বা অন্য কোনো যানবাহনও নেই দেশে ফিরে যাওয়ার জন্যে, অগত্যা পায়ে হেঁটেই দিল্লী থেকে কাছাকাছি জেলার মানুষগুলি গ্রামে ফিরে যেতে একপ্রকার বাধ্য হলেন। সেই জন্যেই সারারাত ধরে পায়ে হেঁটে বাড়ি ফেরার দৃশ্য ধরা পড়ল ক্যামেরায়।
দিনমজুরের কাজ করেন এমন বহু অসংগঠিত শ্রমিকের সংখ্যা দিল্লীতে প্রচুর, যাঁরা হয়ত দিল্লীর কাছাকাছি উত্তর প্রদেশ, হরিয়ানা বা অন্য কোনো রাজ্য থেকে এসেছেন। কাছাকাছি বলতেও হয়ত কয়েকশো কিলোমিটার দূরত্ব হবে। সেই দূরত্ব এখন আর কিছুই  নয় বলে মনে করছেন এঁরা। কারন দিল্লিতে থাকার মত রসদ আর তাঁদের কাছে নেই। তাই একপ্রকার বাধ্য হয়েই পায়ে হেঁটে ফিরে চলা ঘরের উদ্দেশ্যে।  রাতের অন্ধকারে চললে, তাও যদি কর্তব্যরত পুলিশের হয়রানির হাত থেকে বাঁচা যায়, বলছেন তাঁরা।
অনিল নামে এক শ্রমিক জানালেন, "গত তিনদিন যাবদ সেভাবে কিছু খেতে পাইনি, লক ডাউনের জন্যে দিল্লীতে সবরকম কাজকর্ম  বন্ধ হয়ে গিয়েছে। আমরা দিন আনি দিন খাই, দিন আনাই  যেখানে বন্ধ, সেখানে প্রতিদিন আমরা খাব কি ? তাই বাধ্য হয়েই আমরা দেশে ফিরে যাচ্ছি।"
তাঁদের প্রশ্ন করা হয়েছিল, সরকার তো গরিব মানুষদের জন্যে সবরকম ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে, আপনারা কোনো সরকারি সাহায্য পান নি ? তার উত্তরে অন্য এক শ্রমিক বললেন, "সরকার আয়োজন করেছে, আমরা কিছু খাবার পেয়েছিলাম, কিন্তু প্রতিদিন প্রত্যেকের খাবারের ব্যাস্থা করা সরকারের পক্ষে সম্ভব নয়, তাছাড়া আমাদের কারোর হাতে একেবারেই কোনো টাকা নেই, রাজধানীতে বেঁচে থাকতে হলে ন্যূনতম যেটুকু টাকার দরকার, তা আমাদের কারোর কাছে নেই। তাই আমরা দেশে ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।এছাড়া আর কোনো উপায় ছিল না ।"

সৌজন্যে : ANI
Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages