কোরোনা সন্দেহে রাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিব সস্ত্রীক হোম কোয়ারেন্টাইনে, মমতাকেও থাকতে হতে পারে পর্যবেক্ষণে - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


কোরোনা সন্দেহে রাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিব সস্ত্রীক হোম কোয়ারেন্টাইনে, মমতাকেও থাকতে হতে পারে পর্যবেক্ষণে

Share This
 রাজ্য

আজ খবর (বাংলা), কলকাতা, ১৮/০৩/২০২০ : কোরোনা সন্দেহে রাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় সস্ত্রীক গেলেন হোম কোয়ারেন্টাইনে । পরিস্থিতি এমন যে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও হোম কোয়ারেন্টাইন পাঠানো হবে কিনা সে ব্যাপারেও  চিন্তা ভাবনা করছে রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তর। 
ঘটনার সূত্রপাত দিন দুয়েক আগেই, এক তরুণ ইংলন্ড থেকে কলকাতার বাড়িতে ফেরেন। এই তরুণ অক্সফোর্ডে পড়াশুনা করতেন। কলকাতা বিমান বন্দরে তিনি নিজের সর্দি কাশি ও কফ থাকার কথা গোপন করেছিলেন। কলকাতায় ফিরে তিনি বন্ধুবান্ধবদের সাথে দেখা সাক্ষাতও করেছিলেন, বন্ধুদের নিয়ে শপিং মলে  গিয়েছিলেন। তবে এই তরুনের  দেহে জ্বর ছিল না বলে জানা গিয়েছে।
এই তরুণ এম আর বাঙুর হাসপাতালের ডেপুটি সুপারের সাথে দেখা করেছিলেন, সেখানেই তাঁকে দুজন পরীক্ষা করে করোনা পজিটিভ সন্দেহ করে বেলেঘাটা আই ডি হাসপাতালে ভর্তি হতে বলেন। কিন্তু সেই নির্দেশ উপেক্ষা করে ওই তরুণ বাড়ি ফিরে যান, কারন তিনি কোনো সরকারি হাসপাতালে ভর্তি হতে চান নি এই ঘটনার কথা জানতে পারে স্বাস্থ্য ভবন; বিষয়টি পৌঁছায় নবান্নেও। । ডেপুটি সুপার সহ যে দুজন ওই তরুণকে পরীক্ষা করেছিলেন তাদের ওপরেও নজর রাখা হয়েছে। এই তরুণটিই আমাদের রাজ্যের প্রথম করোনা আক্রান্ত হয়েছন বলে জানা যাচ্ছে।
এই তরুনের  মা রাজ্যসরকারের স্বরাষ্ট্র দপ্তরের একজন আমলা। তিনি তাঁর ছেলেকে নিয়ে নবান্নে গিয়েছিলেন।সেখানে রাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে একাধিকবার সাক্ষাৎ করেন। তাই কোনো ঝুঁকি না নিয়ে আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় সস্ত্রীক হোম কোয়ারেন্টাইন করে পর্যবেক্ষণে থাকছেন। 
গত সোমবার আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় একটি সাংবাদিক বৈঠক করেছিলেন সাংবাদিকদের সাথে, সেখানে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। যদিও তিনি আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের থেকে অন্তত পাঁচ মিটার দূরে ছিলেন। লন্ডন থেকে কলকাতায়  আসা ওই তরুণ ও তার মাকে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাঁদের ড্রাইভারকেও সেখানে ভর্তি করা হয়েছে, এমনকি যে লিফট ম্যান সেদিন এঁদেরকে নবান্নের ওপরের তলায় নিয়ে গিয়েছিলেন, পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে তাঁকেও।
ওই তিন জনের লালা সংগ্রহ করে তার পরীক্ষার কাজ চলছে, আজ রাত্রের মধ্যেই সেই পরীক্ষার  রিপোর্ট চলে আসবে। সেই পরীক্ষায় যদি দেখা যায়, করোনা পজিটিভ রয়েছে, তাহলে একজন ভিভিআইপি হিসেবে মুখ্যমন্ত্রীকেও হোম কোয়েরান্টিনে রাখার কথা ভাবছে রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তর। কেননা মুখ্যমন্ত্রীর যদি শারীরিকভাবে কোনো সমস্যা হয়, সেই ঝুঁকি নেবে না স্বরাষ্ট্র দপ্তর। এদিকে নবান্নের যে তলে ওই তরুণ ও তাঁর মা বেশ কিছুক্ষণ কাটিয়েছিলেন, সেই তল কার্যত খালি করে দিয়ে প্রতিটি ইঞ্চি স্যানিটাজ করার কাজ চলছে। ওই তরুণ ও তাঁর মায়ের দায়িত্বজ্ঞানহীনতা দেখে কার্যত স্তম্ভিত  হয়ে গিয়েছেন নবান্নের সরকারি কর্মচারীরা।
Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages