বন্দুকের গুলিতে রক্তাক্ত দেশের রাজনীতি - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


বন্দুকের গুলিতে রক্তাক্ত দেশের রাজনীতি

Share This
রাজনীতি

আজ খবর (বাংলা), নতুন দিল্লী, ০৩/০২/২০২০ : বন্দুকের গুলিতে রক্তাক্ত দেশের রাজনীতি।  দেশের রাজধানীতে ভোট কড়া নাড়ছে দরজায়। দেশব্যাপী চলছে নাগরিকত্ব আইন নিয়ে প্রতিবাদ আন্দোলন। এতদিন প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে প্রয়োগ করা হচ্ছিল কঠিন শব্দ চয়ন করে বাক্যবাণ, কিন্তু এবার বাক্যবানের পর চলতে শুরু করেছে গুলি। আর এই গুলির লড়াইতেই রক্তাক্ত হতে বসেছে দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি। এভাবে আরও কত গুলি চলবে ! আরও কত প্রাণ যাবে ! আরও কতটা রক্তাক্ত হবে দেশের পরিস্থিতি ?  
কিছুদিন আগেই ২৬শে  জানুয়ারি জামিয়ার কাছে সিটিজেনস এমেন্ডমেন্ট আইনের প্রতিবাদী জামিয়া কো অর্ডিনেশন কমিটির সদস্যদের দিকে লক্ষ্য করে গুলি চালিয়েছিল এক ব্যক্তি, পুলিশ ঘটনাস্থল থেকেই তাকে অস্ত্র সমেত গ্রেপ্তার করেছিল। এর মধ্যেই খবর পাওয়া গেল, দিল্লীর শাহীন বাগে সিএএ প্রতিবাদীদের হুমকি দিয়ে শূন্যে গুলি চালিয়েছে আর এক ব্যক্তি। তাকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
আজ আবার একটি খবর পাওয়া গেল, ভোর সাড়ে পাঁচটা নাগাদ দুই দুষ্কৃতী এসে জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঁচ নম্বর গেটের কাছে এসে শূন্যে কয়েক রাউন্ড গুলি চালিয়ে গিয়েছে। যদিও এই ঘটনায় এখনো পর্যন্ত কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায় নি; কিন্তু রাজনীতির চোখ রাঙানি যে বাক্যবাণ থেকে এবার গুলি বর্ষণের দিকে মোড় নিচ্ছে, সেটা এই ঘটনাগুলি থেকেই পরিস্কার হয়ে যাচ্ছে। অসহিষ্ণুতা থেকে জন্ম নিয়েছে হিংসা আর সেই হিংসা থেকে জন্ম নিচ্ছে গুলি করে দেওয়ার স্পৃহা।
দেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতার মুখে এখন গুলি করে দেওয়ার মত সহজ নিদান প্রায়ই শোনা যাচ্ছে। আগে যা বলা হচ্ছিল আকারে ইঙ্গিতে, এখন সেটা স্পষ্ট ভাবে বলা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই উত্তর প্রদেশের লখনৌতে প্রাতঃভ্রমণ করতে গিয়ে গুলিতে ঝাঁঝরা হয়ে গিয়েছেন হিন্দু মহাসভার নেতা রঞ্জিত বচ্চন। মাত্র সাড়ে তিন মাস আগেই উত্তর প্রদেশে খুন হয়ে গিয়েছিলেন কমলেশ তেওয়ারি। 
হিংসার রাজনীতি যদি এইভাবে মাত্রাছাড়া হয়ে মাথা চাড়া দিতে থাকে, তবে পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে। তাই সব রাজনৈতিক দলেরই উচিত হবে কোথাও গিয়ে একটা সীমানা  স্থির করে দেওয়া। রাজনীতিতে বিবাদ, বিতর্ক, আলোচনা, সমালোচনা সব কিছু থাকবে, কিন্তু সবকিছুই যেন শেষ হয় ইভিএমের বোতামে, তার আগেই যেন ট্রিগারে চাপ না পড়ে । এতে দেশেরই ক্ষতি হবে। 
Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages