লোকসভায় সমর্থন দিয়েও CAAর বিরোধিতায় নীতিশ কুমার - আজ খবর । দেখছি যা লিখছি তাই । ডিজিটাল মিডিয়ায় অন্যতম শক্তিশালী সংবাদ মাধ্যম

Sonar Tori


লোকসভায় সমর্থন দিয়েও CAAর বিরোধিতায় নীতিশ কুমার

Share This
রাজনীতি

আজ খবর, পাটনা, ২০/১২/২০১৯ : সংসদের উভয় কক্ষেই পাস হয়েছে সিটিজেনস এমেন্ডমেন্ট বিল, তারপর তা রাষ্ট্রপতির সাক্ষর হয়ে পরিণত হয়েছে সিটিজেনস এমেন্ডমেন্ট আইনে। কিন্তু দেশ জুড়েই এই আইনের প্রতিবাদে মুখর হয়েছে বিরোধী দলগুলি। আসাম ও ত্রিপুরা সহ উত্তর পূর্ব ভারতের বিভিন্ন রাজ্য এই আইনের বিরোধিতা করে আন্দোলনে নেমেছিল, দিল্লী, আলীগড়, লখনৌ, হায়দ্রাবাদ, কলকাতা, হাওড়া, ম্যাঙ্গালোর, পাঞ্জাবের বিভিন্ন জায়গায়, গুজরাটের কিছু জায়গা ছাড়াও দেশের বিভিন্ন প্রান্ত অশান্ত হয়ে উঠেছে এই আইনের প্রতিবাদে।
পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রথম থেকেই পরিষ্কার করে জানিয়ে দিয়েছেন, পশ্চিমবঙ্গে সিএবি বা এনআরসি কোনোটাই লাগু  করা হবে না; আর লোকসভায় এই আইনের পক্ষে সমর্থন জানিয়েও শেষমেশ সেই সমর্থন তুলে নিয়ে জেডিইউ তাদের অবস্থান স্পষ্ট করে জানিয়ে দিল যে বিহারেও এই আইনকে বলবৎ করা হবে না; আজ এই বিষয়ে দলের তরফ থেকে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়ে নীতিশ কুমার বলেন, "বিহারে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন বলবৎ করা হবে না;" 
সিটিজেনস এমেন্ডমেন্ট বিলকে লোকসভায় সমর্থন জানালেও, জেডিইউ দলের অন্দরে  এই আইন নিয়ে যথেষ্ট ক্ষোভ ছিলই। দলের অন্যতম গুরুত্ত্বপূর্ণ নেতা প্রশান্ত কিশোর এই আইনের বিরোধিতা করার কথা জানিয়েছিলেন দলের অভ্যন্তরে, শুধু প্রশান্ত কিশোরই নন, নিজেদের ক্ষোভের কথা জানিয়েছিলেন অন্যান্য নেতারাও। দলের মুখপাত্র তথা জাতীয় সম্পাদক  পবন কুমার ভার্মা এই আইনের বিরোধিতা করে দল ছাড়তেও চেয়েছিলেন। এরকম একটা অবস্থায় আজ নীতিশ কুমার ঘোষণা করে দিলেন এই নতুন আইন তাঁর রাজ্যে চালু করবেন না;  প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এনআরসি আইন সমর্থন করছেন না ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়কও, সুতরাং, ওড়িশাতেও এনআরসি আইন বলবৎ না হওয়ার সম্ভাবনা রয়েই গিয়েছে।
Loading...

Amazon

https://www.amazon.in/Redmi-8A-Dual-Blue-Storage/dp/B07WPVLKPW/ref=sr_1_1?crid=23HR3ULVWSF0N&dchild=1&keywords=mobile+under+10000&qid=1597050765&sprefix=mobile%2Caps%2C895&sr=8-1

Pages